খেলা

পাকিস্তানকে উড়িয়ে সেমির পথে ভারত

87views

পাকিস্তানকে হারিয়ে ঘরের মাঠে বিশ্বকাপে টানা তৃতীয় জয় পেয়েছে ভারত। নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে আজ শনিবার বাবর আজমদের বিপক্ষে ৭ উইকেটের বড় জয় পেয়েছে রোহিতরা। ভারতের পরবর্তী ম্যাচ বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৯ অক্টোবর। অন্যদিকে, ২০ অক্টোবর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাকিস্তানের পরবর্তী ম্যাচে মাঠে নামবে বাবর আজমরা।

শনিবার (১৪ অক্টোবর) ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ভালো বল করলেও পরবর্তীতে ভারতীয় বোলারদের তাণ্ডবে ১৯১ রানেই অলআউট হয়ে যায় বাবর আজমরা। ১৯২ রানে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তানী বোলারদের পাত্তাই দেয়নি ভারত। রোহিত শর্মার ৮৬ এবং শ্রেয়াসের ৫৩ রানের সুবাদে ৩০.৩ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৯২ রান তোলে ৭ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে টিম ইন্ডিয়া।

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই আলাদা উন্মাদনা। নানা কারণে দুইদলের দ্বিপাক্ষিক সিরিজ হয় না দীর্ঘদিন। তাই, দুইদলের ম্যাচ দেখার জন্য ক্রিকেট ভক্তদের অপেক্ষা করতে হয় বড় বড় আসরের জন্য। এবার ভারত বিশ্বকাপের মঞ্চে মুখোমুখি হয় দুই চির প্রতিদ্বন্ধী দল। আজ শনিবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টা ৩০মিনিটে আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন ভারত মুখোমুখি হয় বাবর আজমের পাকিস্তানের সাথে। এ ম্যাচ নিয়ে ভক্তদের মাঝে উন্মাদনা শুরু হয় আসর শুরু হওয়ার বহু আগে থেকেই। তবে, এমন ম্যাচে পাত্তাই পায়নি পাকিস্তান।

পাকিস্তানের ১৯২ রানের মাঝারি টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তানের বোলারদের তুলোধুনো শুরু করেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা ও ডেঙ্গু থেকে ফিরে আসা শুভমান গিল। তবে, তৃতীয় ওভারে শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে সাদাব খানের হাতে ধরা পড়েন চারটি চারে ১১ বলে ১৬ রান করা গিল। এরপর ভিরাট কোহলিও ইনিংস বেশি বড় করতে পারেননি। তবে, অপর প্রান্তে থাকা রোহিত ঠিকই একের পর এক ছক্কা চারে পাকিস্তানী বোলারদের ওপর স্টিম রোলার চালাতে থাকেন। পথিমধ্যে একটি রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলেন রোহিত। ওয়ানডে ফরম্যাটে তৃতীয় ব্যাটার হিসেবে ৩০০টি ছক্কা হাঁকানোর তালিকায় জায়গা করে নেন রোহিত।

এরপর চারে নামা শ্রেয়াস আয়ারের সাথে জুটি গড়ে তোলেন ভারতীয় অধিনায়ক। শ্রেয়াস আয়ারও রোহিতের সাথে চার ছক্কা হাঁকানোর পার্টিতে যোগ দেন। রোহিত তুলে নেন ক্যারিয়ারের ৫৪তম অর্ধ-শতক। শ্রেয়াস আয়ার ও রোহিত শর্মার জুটিতে জয়ের পথে এগোতে থাকে ভারত। তবে ২২তম ওভারে দলীয় ১৫৬ রানের মাথায় শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে ধরা পড়ে ফিরে যান ৬৩ বলে ৮৬ রান করা রোহিত। ভারতীয় অধিনায়ক সাজঘরে ফেরার আগে ৬টি চার ও ৬টি ছক্কা হাঁকান। এরপর ভারতের হয়ে বাকি কাজ সেরে ফেলেন শ্রেয়াস আয়ার ও লোকেশ রাহুল। আয়ার ৫৩ রানে ও রাহুল ১৯ রান করে অপরাজিত থাকেন। পাকিস্তানের হয়ে শাহিন শাহ আফ্রিদি ২টি উইকেট শিকার করেন।

এর আগে, টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিল পাকিস্তানের দুই ওপেনার আব্দুল্লাহ শফিক ও ইমাম-উল-হক। প্রথম ৮ ওভারে কোনো উইকেট পড়তে দেননি তারা। ৮ম ওভারের শেষ বলে আব্দুল্লাহ শফিককে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন ভারতকে প্রথম সফলতা এনে দেন মোহাম্মদ সিরাজ। ক্রিজ ছাড়ার আগে ২৪ বলে ৩ বাউন্ডারিতে ২০ রান করেন আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানো শফিক। এরপর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি ইমামও। গত দুই ম্যাচে রান পাননি পাক অধিনায়ক বাবর আজমও। তবে আজ ভারতের বিপক্ষে ঠিকই স্বরূপে ফিরলেন এই ব্যাটার। দুই ওপেনার দ্রুত সাজঘরে ফেরার পর রিজওয়ানকে সঙ্গে নিয়ে দলকে টেনে তোলেন বাবর। তুলে নেন ব্যক্তিগত হাফ সেঞ্চুরিও। চলমান বিশ্বকাপে এটা তার প্রথম ফিফটি। এরপর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি পাকিস্তান অধিনায়ক। মোহাম্মদ সিরাজের বলে বোল্ড হওয়ার আগে তার ব্যাট থেকে এসেছে ৫০ রান। বাবরের বিদায়ের পর একে একে ধসে পরে পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইন আপ। শেষ পর্যন্ত ১৯১ রানেই অলআউট হয়ে যায় পাকিস্তান। ভারতের হয়ে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন বুমরাহ, সিরাজ, হার্দিক, কুলদিপ ও জাদেজা।

Leave a Reply